• শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ০১:২৪ অপরাহ্ন
  • [gtranslate]
শিরোনাম:
ফটিকছড়ি উপজেলায় ভোটগ্রহণ চলছে, তবে ভোটার উপস্থিতি খুবই কম চৌদ্দগ্রামে রিল্যাক্স পরিবহনের বাস খাদে পড়ে নিহত ৫ নাসিরাবাদ এলাকার মিললো দুই নবজাতকের মরদেহ চট্টগ্রাম থেকে শুরু হয়েছে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের হজ ফ্লাইট বাঘাইছড়ি উপজেলার বঙ্গলতলী ইউনিয়নে দুপক্ষের পাল্টাপাল্টি গুলি কর্ণফুলী নদীর মোহনায় প্রশিক্ষণ বিমান বিধ্বস্ত, পাইলট নিহত যুব ঐক্য পরিষদের সাতকানিয়ার যুগ্ম আহ্বায়ক নির্বাচিত হয়েছেন মিশু দাশ উপজেলা নির্বাচনে মন্ত্রী-এমপির স্বজনদের বিরত রাখা দলের নীতিগত সিদ্ধান্ত : কাদের পেঁয়াজ রপ্তানিতে নিষেধাজ্ঞা নিষেধাজ্ঞা তুলে দিয়েছে ভারত এসএসসি পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ হবে আগামী ১২ মে

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ২ লাখ টাকার কাজে ৩ লাখ টাকা চাঁদা দাবি

অনলাইন ডেস্ক
আপডেটঃ : শনিবার, ৩ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪

স্টাফ রিপোর্টার, চবি: ২ লাখ ১৩ হাজার টাকায় একটি নামফলক তৈরির কাজে ঠিকাদারের কাছে ৩ লাখ টাকা চাঁদা দাবির অভিযোগ উঠেছে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (চবি) শাখা ছাত্রলীগের চার নেতার বিরুদ্ধে। চাঁদা দিতে অস্বীকার করায় ঠিকাদারকে মারধর করা হলে এ ঘটনায় অভিযুক্ত ৪ নেতার বিরুদ্ধে মামলা করেছেন ওই ঠিকাদার।

গতকাল ২ ফেব্রুয়ারি শুক্রবার মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেন হাটহাজারী থানার ওসি মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান। গত ৩১ জানুয়ারি বিকেল ৪টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের নতুন কলা ও মানববিদ্যা অনুষদের সামনে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার পর ভুক্তভোগী ঠিকাদার তামজিদ উদ্দিন হাটহাজারী থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। অভিযুক্তরা হলেন- শাখা ছাত্রলীগের সাবেক সহসভাপতি মেহেদী হাসান, সাংগঠনিক সম্পাদক শাফায়েত হোসেন, উপ কর্মসূচি ও পরিকল্পনা বিষয়ক সম্পাদক মাশরুর কামাল অনিক ও সহ সম্পাদক মোহাম্মদ হৃদয়। মামলার এজাহার সুত্রে জানা যায়, সমাজবিজ্ঞান অনুষদের সামনে একটি নামফলক নির্মাণ করার জন্য ডিন অফিস থেকে দায়িত্ব পায় মেসার্স আরএস এন্টারপ্রাইজ নামের একটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান। তারা সেখানে কাজ করতে গেলে বাধা দেন ছাত্রলীগের একাধিক নেতা। পরে অভিযুক্তরা তিন লাখ টাকা চাঁদা দাবি করেন।

চাঁদা না দেওয়ায় মারধর করা হয় তাদের। ভুক্তভোগী ঠিকাদার তামজিদ উদ্দিন আরও উল্লেখ করেন, তার পিতা মো. সেকান্দর চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্তর্ভুক্ত ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান মেসার্স আরএস এন্টারপ্রাইজের সত্ত্বাধিকারী হন। তিনি হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়ায় তামজিদ ওই নামফলকের নির্মাণকাজ পরিচালনা করছেন। ঘটনার ৩ দিন আগে একটি ফোন নম্বর থেকে তামজিদের বাবাকে আসামিরা ফোন করেন। সেখানে বলা হয়, ওই নির্মাণকাজ পরিচালনা করতে হলে সাফায়েত হোসেন, মেহেদী হাসান, মাশরুর কামাল অনিক ও হৃদয়কে তিন লাখ টাকা চাঁদা দিতে হবে। তাদের চাহিদা অনুযায়ী টাকা না দিলে কাজ করতে দেবে না বলেও তামজিদের বাবাকে হুমকি দেওয়া হয়।

এদিকে গত ৩১ জানুয়ারি নামফলকের কাজ চলমান থাকা অবস্থায় বিকেল চারটার দিকে নাম উল্লেখ করা চার আসামিসহ অজ্ঞাতনামা ৭/৮ জনসহ সমাজবিজ্ঞান অনুষদের সামনে এসে কাজে বাধা দেন। ওই সময় কাজ চালিয়ে যেতে চাইলে আবারও তিন লাখ টাকা চাঁদা দিতে হবে বলে জানান। ঠিকাদার তামজিদ উদ্দিন বলেন, ভর্তি পরীক্ষাকে সামনে রেখে সংস্কারের অংশ হিসেবে সমাজবিজ্ঞান অনুষদের সামনে একটি নামফলকের কাজ পাই আমি। কাজটির জন্য ২ লাখ ১৩ হাজার টাকা বরাদ্দ হলেও অভিযুক্ত ৪ ছাত্রলীগ নেতা আমার কাছে ৩ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করেন। চাঁদা দিতে অস্বীকার করায় তারা আমাকে এলোপাতাড়ি কিলঘুষি ও লাথি মারেন। তাদের হাত থেকে বাঁচাতে আমার বন্ধু ফাহিম আলম এগিয়ে এলে তাকেও আসামিরা লোহার রড ও কাঠের বাটাম দিয়া এলোপাতাড়ি পিটিয়ে শরীরের বিভিন্ন স্থানে জখম করেন। এরপর তারা আমাদেরকে আব্দুর রব হলে নিয়ে গিয়ে ২৫ মিনিট মত আটকে রেখে হুমকি-ধমকি দেন। সেখান থেকে কোনোমতে বের হয়ে আমি প্রক্টর কার্যালয়ে গিয়ে লিখিত অভিযোগ দেই। সমাজবিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক সিরাজ উদ দৌল্লাহ বলেন, আমাদের বিভাগের নামফলক না থাকায় একটি নামফলক নির্মাণ করতে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছিল। সেখানে কয়েকজন ছাত্র তাদের কাজ করতে বাধা এবং চাঁদা দাবির বিষয়টি জানতে পেরেছি। পরে আমি বিষয়টি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরকে জানিয়েছি।

চবি প্রক্টর ড. মোহাম্মদ নূরুল আজিম শিকদার বলেন, এরকম একটি অভিযোগ আমরা পেয়েছি। রেজিস্টারের মাধ্যমে তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। আগামীকাল রোববার তদন্ত কমিটি প্রতিবেদন দেবে।

হাটহাজারী থানার ওসি মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান বলেন, আমরা এরকম একটি মামলা পেয়েছি।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো নিউজ