• মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ০৬:৩৭ পূর্বাহ্ন
  • [gtranslate]

দাঁতমারার বালুটিলায় আ.লীগ নেতা খুনের পেছনে নানা সন্দেহ

নিউজ ডেস্ক
আপডেটঃ : রবিবার, ১৬ এপ্রিল, ২০২৩

স্টাফ রিপোর্টার : গত ২৫ মার্চ শনিবার মাত্র ১০ মিনিটে খুন করে পালিয়ে যায় দুর্বৃত্তরা। এদিন মাসুদুর রহমান গত তারাবি নামাজ পরে দাঁতমারা ইউনিয়ন বালুটিলা এলাকায় বাসায় যাচ্ছিলেন। জানা গেছে, ফটিকছড়ি উপজেলার ২ নং দাঁতমারা ইউনিয়নের বালুটিলায় বিগত ইউপি নির্বাচনের বিরোধের জের ধরে মাসুদুর রহমানের সঙ্গে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানের অনুসারী অনেকের সঙ্গে নানামুখী দ্ব›দ্ব ছিল। ফটিকছড়ি উপজেলার দাঁতমারা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের তৃনমূল পর্যায়ের নেতা মাসুদুর রহমান হত্যার নেপথ্যের কারণ হিসেবে নানা সন্দেহ যেমন রয়েছে, একই সঙ্গে সামনে এসেছে নতুন-পুরোনো নানামুখী দ্বন্দ্বের কথা। স্থানীয়রা বলছেন, এ হত্যার পেছনে একাধিক কারণ থাকতে পারে। তবে ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি আকতার হোসেনকে গ্রেপ্তার করার পর প্রকৃত কারণ জানা যাবে। নিহত মাসুদুর রহমানের ছোটভাই ছাত্রলীগ নেতা মির্জা মাহাবুবুর রহমান সুজন চট্টলবীরকে বলেন, এটি পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ড। নিহত মাসুদুর রহমানকে গত ২৫ মার্চ শনিবার তারাবি নামাজের পর দাঁতমারা ইউনিয়ন বালুটিলা এলাকায় হত্যা করা হয়। তিনি এ সময় তারাবি নামাজ শেষে বাসায় যাচ্ছিলেন। দীর্ঘদিন পর গত ২৫ মার্চ শনিবার এভাবে কাউকে বালুটিলা এলাকায় সকলের সামনে হত্যা করার ফলে এটা দাঁতমারা ইউনিয়নে আলোচিত বিষয় হিসেবে দাঁড়িয়েছে। আওয়ামী লীগসহ স্থানীয় বিভিন্ন সূত্রের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, মাসুদুর রহমানকে হত্যার পর তাঁর সঙ্গে এলাকার রাজনীতি ও ২ নং দাঁতমারা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. জানে আলমের সাথে শিল্পপতি মেহেদি হাসান বিপ্লবের পুরোনো নানামুখী দ্ব›দ্ব ও বিরোধের কথা সামনে এসেছে। নিহত মাসুদুর রহমান ইউনিয়নের যে গ্রামের বাসিন্দা শিল্পপতি মেহেদি হাসান বিপ্লবও একই গ্রামের বাসিন্দা। জানা গেছে, মেহেদি হাসান বিপ্লবের সামাজিক কর্মকাণ্ডগুলোতে সহযোগিতা করতেন মাসুদুর রহমান। তাই মেহেদি হাসান বিপ্লবকে দুর্বল করার জন্য চেয়ারম্যান মো. জানে আলম গ্রুপের অনুসারীরা এই মাসুদ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটিয়ে থাকতে পারে বলে সন্দেহ করছে অনেকে। ওই এলাকার অপরাধজগতের বিষয়ে জানাশোনা আছে, সরকারি দলের এমন একজন নেতা চট্টলবীরকে বলেন, একজন মানুষকে ছোটখাটো কোনো কারণে হত্যা করা হয় না। এর সঙ্গে অনেক পুরোনো দ্বন্দ্বের পাশাপাশি স্থানীয় চেয়ারম্যানের স্বার্থসংশ্লিষ্ট নতুন হিসাব-নিকাশও জড়িত থাকতে পারে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো নিউজ