• মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ০৪:৫১ পূর্বাহ্ন
  • [gtranslate]

বেনাপোল এক্সপ্রেসে আগুন দেয়ার কথা স্বীকার করলেন যুবদলনেতা

অনলাইন ডেস্ক
আপডেটঃ : শনিবার, ৬ জানুয়ারী, ২০২৪

স্টাফ রিপোর্টার: রাজধানীর গোপীবাগ এলাকায় বেনাপোল এক্সপ্রেস ট্রেনে আগুনের ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক মোহাম্মদ নবী উল্লাহ নবী ও যুবদল কাজী মনসুরসহ ৬ জনকে গ্রেপ্তার করেছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশ। গ্রেফতারের পর যুবদলনেতা কাজী মনসুর ডিবির কাছে আগুন দেওয়ার পরিকল্পনা এবং কিভাবে তারা আগুন দিয়েছে তার সবকিছু অকপটে স্বীকার করেছেন। আগুন দেওয়ার পরিকল্পনার অংশ হিসেবে তারা কয়েক দফা মিটিং করেছিলেন। সর্বশেষ গতকাল ৫ জানুয়ারি শুক্রবার সন্ধ্যা ছয়টার দিকে ঢাকা মহানগর বিএনপি নেতাদের নিয়ে তাদের একটি ভার্চুয়াল মিটিং হয়। যা তিনি গ্রেফতারের পর ডিবি কার্যালয়ে ধারণ করা একটি ভিডিওতে স্বীকার করেছেন। শনিবার (৬ জানুয়ারি) দুপুরে ঢাকা মহানগর পুলিশের মিডিয়া বিভাগের পক্ষ থেকে গণমাধ্যমকে সেই ভিডিও সরবরাহ করা হয়েছে। সরবরাহকৃত সেই ভিডিওতে গাজী মনসুর ট্রেনে আগুন দেওয়ার ঘটনায় নানান কিছু স্বীকার করেছেন। সেই ভিডিওতে তিনি বলেছেন, আমরা ঢাকার বিভিন্ন টিম লিডার মিলে একটা ভার্চুয়াল মিটিং করি। সর্বশেষ যে মিটিংটা হইছে, সেইটা সন্ধ্যা ছয়টায়। ওই সময় আমি আমার অফিসে ছিলাম। মতিঝিলে ভাইয়ের অফিসে। সেই মিটিংয়ে ঢাকা মহানগর দক্ষিণের আহ্বায়কসহ অনেকে ছিল। যখন গ্রুপে কল আসছে একে একে সবাই রিসিভ করছে আমিও রিসিভ করছি। সন্ধ্যা ৬ টা ২ মিনিটে হোয়াটসঅ্যাপে কল আসে। এসময় তিনি তার মোবাইল ফোনটির স্ক্রিন দেখাচ্ছেন
এরপর তিনি বলতে থাকেন, সেই মিটিংয়ে দুইটি সিদ্ধান্ত হয়। একটি থানাভিত্তিক আরেকটি ট্রেনে আগুন দেওয়ার ব্যাপারে। এ সময় পাশে থাকা একজন ডিবির কর্মকর্তা তাকে বলছিলেন তুমি কাউকে ফাঁসানোর জন্য মিথ্যা কথা বলছ নাতো? তখন গাজী মনসুর বলে ওঠেন, না-আমি মিথ্যা কথা বলছি না। আমার একটা ছোট্ট ছেলে আছে। আমি কাউরে ফাঁসায় দিতেও চাইনা, মিথ্যা কথাও বলতেছি না। কথা ছিল নেত্রকোনা থেকে আসা কোনো ট্রেন অথবা নারায়ণগঞ্জ থেকে আসা-যাওয়া ট্রেনে তারা আগুন দেবে। মিটিং শেষে এনামুল তাকে বিষয়টি বুঝিয়ে দেবেন বলেও জানিয়েছিলেন। রাজধানীর গোপীবাগে বেনাপোল এক্সপ্রেস ট্রেনে অগ্নিকাÐের ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক মোহাম্মদ নবী উল্লাহ নবী ও যুবদল কাজী মনসুরসহ ৬ জনকে গ্রেপ্তার করেছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশ। ট্রেনের আগুনের ঘটনায় এখন পর্যন্ত ৪ জন নিহত এবং ৮ জন দ্বগ্ধ হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। তাদের অবস্থাও ঝুঁকিমুক্ত নয় বলে জানিয়েছেন চিকিৎসক।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো নিউজ