• শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ০২:২০ অপরাহ্ন
  • [gtranslate]
শিরোনাম:
ফটিকছড়ি উপজেলায় ভোটগ্রহণ চলছে, তবে ভোটার উপস্থিতি খুবই কম চৌদ্দগ্রামে রিল্যাক্স পরিবহনের বাস খাদে পড়ে নিহত ৫ নাসিরাবাদ এলাকার মিললো দুই নবজাতকের মরদেহ চট্টগ্রাম থেকে শুরু হয়েছে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের হজ ফ্লাইট বাঘাইছড়ি উপজেলার বঙ্গলতলী ইউনিয়নে দুপক্ষের পাল্টাপাল্টি গুলি কর্ণফুলী নদীর মোহনায় প্রশিক্ষণ বিমান বিধ্বস্ত, পাইলট নিহত যুব ঐক্য পরিষদের সাতকানিয়ার যুগ্ম আহ্বায়ক নির্বাচিত হয়েছেন মিশু দাশ উপজেলা নির্বাচনে মন্ত্রী-এমপির স্বজনদের বিরত রাখা দলের নীতিগত সিদ্ধান্ত : কাদের পেঁয়াজ রপ্তানিতে নিষেধাজ্ঞা নিষেধাজ্ঞা তুলে দিয়েছে ভারত এসএসসি পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ হবে আগামী ১২ মে

৭ বছরেও হয়নি ফটিকছড়ি উপজেলা আ. লীগের সম্মেলন, নেতা-কর্মীদের মধ্যে হতাশা

নিউজ ডেস্ক
আপডেটঃ : শনিবার, ৬ মে, ২০২৩

তপন তালুকদার : দীর্ঘদিন সম্মেলন না হওয়ায় নড়বড়ে অবস্থা দেখা দিয়েছে চট্টগ্রামের ফটিকছড়ি উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক কার্যক্রমে। সর্বশেষ গত ২০১৬ সালের ১ অক্টোবর শনিবার অবিভক্ত ফটিকছড়ি উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। এটি ছিলো সেসময়ে দীর্ঘ এক যুগ পর চট্টগ্রামের ফটিকছড়ি উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন। এতে মুজিবুল হক সভাপতি এবং নাজিম উদ্দিন মূহুরী সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছিলেন। এই কমিটির সভাপতি মুজিবুল হক মৃত্যুবরন করলে বর্তমানে ভারপ্রাপ্ত সভাপতি দিয়ে ফটিকছড়ি উপজেলা আওয়ামী লীগ পার করেছে দীর্ঘ ৭ বৎসর। দীর্ঘ ৭ বছর পার হয়ে গেলেও নতুন করে কোনো সম্মেলন হয়নি। ফলে উঠে আসছে না নতুন নেতৃত্ব। এতে দীর্ঘ হচ্ছে কমিটিতে স্থান প্রত্যাশী নেতাদের অপেক্ষার পালা। অনেকের মধ্যে সৃষ্টি হয়েছে চাপা ক্ষোভ ও হতাশা। তবে এখনই সম্মেলন করার কথা ভাবছেন না দায়িত্বপ্রাপ্তরা। তারা অপেক্ষা করছেন দলীয় সিদ্ধান্তের ওপর।

ফটিকছড়ি উপজেলা আওয়ামী লীগের একাধিক নেতা জানান, বিরোধীদলে থাকা অবস্থায় সরকার পতনের আন্দোলনে ফটিকছড়ি উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে বিভিন্ন থানা ও ওয়ার্ডের নেতাকর্মীরাই রাজপথে থেকেছে। সহযোগী সংগঠনের ক্ষেত্রেও তাই। বিগত সময়ে বিএনপি-জামায়াতের আন্দোলন, মানুষ হত্যা, জ্বালাও-পোড়াওসহ নানা অপরাজনীতির জবাব ফটিকছড়ি উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতারাই দিয়েছেন। কিন্তু দীর্ঘদিন ফটিকছড়ি উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন না হওয়ায় নেতারা ঝিমিয়ে পড়েছেন। কেউ কেউ রাজনীতি ছেড়ে ব্যবসা-বাণিজ্যে ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন। এ অবস্থা চলতে থাকলে আগামীতে আরও ক্ষতিগ্রস্ত হবে আওয়ামী লীগ। অন্যদিকে, সম্মেলন ছাড়াও বর্তমান কমিটিরও মেয়াদ উত্তীর্ণ হয়েছে। অনেক বছর সম্মেলন না হওয়ায় দায়িত্বে থাকা নেতাদের প্রতি ক্ষোভ প্রকাশ করছেন পদ-পদবি বঞ্চিতরা। ঝিমিয়ে পড়েছে সংগঠনের কার্যক্রম।

জানা গেছে, ফটিকছড়ি উপজেলা আওয়ামী লীগের শীর্ষ নেতাদের দ্ব›দ্ব, স্বজন-প্রীতি, অনিয়ম, বিতর্কিত ও হাইব্রিডদের নাম আলোচনায় আসায় কমিটি গঠনে বড় অন্তরায় হিসেবে কাজ করছে। তাদের মতে, দলের জন্য নিবেদিত, রাজনীতিতে অভিজ্ঞ নেতাদের উপেক্ষা করে পছন্দের নেতাদের দিয়ে পকেট কমিটি গঠনের চেষ্টা করছেন একটি গ্রুপ। বিদ্যমান পরিস্থিতিতে আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য এবং সাবেক গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন ফটিকছড়ি উপজেলা আওয়ামী লীগের গ্রুপিং নিষ্পত্তির জন্য দফায় দফায় বৈঠক করেও ব্যর্থ হয়েছেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো নিউজ